অল্প জায়গায় বাড়ির নকশা

ছোট জমিতে সুন্দর তিন রুমের বাড়ির নকশা

তিন রুমের নকশা:

আজকাল ছোট জমতে সবাই তিন রুমের বাড়ির নকশা করতে চায়। তাই  তিন রুমের বাড়ি হলে মোটামুটি privechy রেখে বসবাস করা যায়। এবং অনেক সময় দেখা যায় এর কম রুম হলে private space গুলা 100% privacy করা যায় না। তাই তিন রুম হলে 1 রুম নিজের জন্য, এবং এক রুম বাচ্চাদের জন্য, অন্য রুম কোনো গেস্ট আসলে ব্যাবহার করা যায়।

আর সেই সাথে ড্রইং রুম ডাইনিং রুম তো আছে ই। তাই ড্রইং ডাইনিং রুমের সাথে কমন টয়লেট আর বেছিন দিতে পারেন।

রুমের বিন্যাস:

রুমের বিন্যাসের জন্য মেইন দরোজা দিয়ে ঢুকে প্রথমে ড্রইং রুম তার পাশে ডাইনিং রুম। এবং  সাথে কেমন টয়লেট আর বেছিন । আর তার পাশে গেস্ট রুম। এই পূর্যন্ত পাবলিক স্পেস। প্রাইভেট স্পেস ও সুন্দর করে সাজাতে হবে।

ভিডিও : সুন্দর একটা বাড়ির এনিমেশন

দেখতে যেন সুন্দর হয়:

বাড়ির সামনের অংশ যেন প্রথম দেখায় চোখ না সরে।  যেন কিছু সময় তাকায় দেখতে ইচ্ছা করে। আর ফ্লাট এর মধ্যে ও ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন ও যেন সুন্দর হয়। তাই বিশেষ করে পাবলিক স্পেস যেন সুন্দর করে ডেকোরেশন করা হয়।

লাইট ব্যালান্স:

লাইট ব্যালান্স যেন সুন্দর হয়। আর অনেক দেশে প্রতিটা রুমের প্রতিটা দেয়াল এর 3D করে পারলে এনিমেশন ও করে। আমাদের দেশে অটো ভালো করে অনেক করতে চায় না। যদিও এটা ঠিক নয়। তাই অন্তত বাড়ির বাহিরের দিক আর ইন্টেরিয়র পাবলিক spach যেন ভালো করে সাজিয়ে নিয়া হয়।

beautiful home design

চিত্র : তিন রুমের দুই উনিটের নকশা , ১০১২ স্কয়ার ফিট

মজবুত কাঠামো:

বাড়ি তো তো আর প্রতিদিন বানাবেন না। স্টাকচার ডিজাইন ও ভালো হতে হবে। আমাদের দেশে চার তোলার উপর কোনো বিল্ডিং হলে ডায়নামিক এনালাইসিস করা প্রয়োজন। তাই ভালো ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে ডিজাইন করান। আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

ভালো মানের কংক্রিট বানানো একটা বোরো চ্যালেঞ্জ। ভালো মানের রড পাওয়া যায়।  কিন্তু ভালো মানের কংক্রিট দোকানে কিনতে পাওয়া যায় না।  এটা বানিয়ে নিতে হয়। এ জন্য ভালো মানের খুয়া , বালি , পানি প্রয়োজন। মনে রাখবেন আপনি যত দেরিতে রড এ মরিচা লাগাতে পারবেন তত দির্খ হবে আপনার স্থাপনা।

এ জন্য ভালো মানের কংক্রিটে একটা বোরো চেলেঞ্জ। অনেক বোরো নিয়ম আছে। আপনি যদি ভালো কংক্রিটে বানান আপনার বাড়ি ১০০ বছর এর বেশি টিকে থাকবে। এখন আপনি ঠিক করেন প্রতি ২০ বছর পরে আপনার ইস্থাপনা ভেঙে আবার করবেন নাকি ১০০ বছর টিকে থাকুক আপনার স্থাপনা।

সুন্দর একটা প্লান যেমন খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তার থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মজবুত কাঠামো। ফাউন্ডেশন, কালাম বিম যেন মজবুত হয়। চেষ্টা করবেন যত সম্ভব রড যেন মরিচা না লাগে। রড এ যত দেরিতে মরিচা লাগবে একটা বিল্ডিং তত দিন টেকসই হবে। তাই ভালো একজন ইঞ্জিনিয়ার দিয়ে কংক্রিট মিক্স ডিজাইন করুন। ভালো মানের বালু , খুয়া ছিমেন্ট রড ব্যবহার করুন। খুয়া হিসাবে অবশ্যই পাথর ব্যবহার করুন। একটা গুরুত্বপূর্ণ কারণ হলো পাথর অনেক কম পানি শোষণ করে আর অনেক লোড নিতে পারে। আপনি ভালো চাপ নিয়ার ক্ষমতা সম্পন্ন কংক্রিট করতে চাইলে খুয়া যদি নরমাল হয় তাহলে তো অসুবিধা।

কেমিকেল ব্যবহার করুন:

Water Reducing Admixture:

কংক্রিটে তৈরী করতে পানির প্রয়োজন। কিন্তু পানি বেশি দিলে মেস্তরি দেড় কাজ করতে সুবিধা হয়।  কিন্তু পানি বেশি থাকার ফলে কংক্রিটের মধ্যে ফাঁকা জায়গা বেড়ে যায় যার দরুন শক্তি কুমে যায়।

Water proofing Admixture:

আমাদের দেশে প্রচুর বৃষ্টি হয়।  তাই মাটির চিনে সব কাঠামো তে পানি প্রতিরোধী adminture  ব্যবহার  করুন।

সেট ব্যাক:

বাড়ির প্লান করার সময় একটা বিষয় খুব লক্ষ রাখতে হবে যে, পাশে যেন জমি ছেড়ে করা হয়। ইঞ্জিনিয়ার বা আর্কিটেক্ট বলে দিবে কোন পাশে কত টুকু জমি ছাড়তে হবে। এর একটা হিসাব আছে তাই সাধারণ ভাবে বলা যায় না।

নিরাপত্তা বেবস্থা :

বাড়ির প্লান করার সময় লক্ষ রাখতে হবে যেন, নিরাপত্তা ব্যবস্থা মজবুত থাকে। ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে বাড়ির সুন্দর একটা প্লান করা জরুরি।

তাই বর্তমান এ 3 রুমের বাড়ির প্লান বেশি করা হচ্ছে যারা নিজেরা থাকতে চায়। শহরে যাদের নিজেদের থাকার জন্য বাড়ি করে সবাই মোটামুটি তিন রুমের বাড়ির নকশা করছে।

nbconsultant

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Rating*